'প্রেমের' টানে 'আমেরিকা' থেকে বাংলাদেশ, হলেন 'বাংলার বউ'

‘প্রেমের’ টানে ‘আমেরিকা’ থেকে বাংলাদেশ, হলেন ‘বাংলার বউ’

প্রেমের টানে আমেরিকা থেকে ছুটে এলেন শ্যারুন। হয়ে গেলেন ফরিদপুরের বউ। শ্যারন আমেরিকায় এক ব্যাংকে কর্মরত। এবার আসা যাক মুল কথায় ।

===========================

ফরিদপুর নিবাসি আলাউদ্দিন মাতুব্বর এর পুত্র আশরাফউদ্দিন সিংকু পড়াশুনা করেন কবি নজ্রুল কলেজে। সিংকু জানান প্রায় ৬ মাস আগে শ্যারনের সাথে ফেসবুকের মাধ্যমে তার পরিচয় হয়।



তার পর থেকে দুজনের মাঝে শুরু হয় প্রমের সম্পর্ক। শ্যারন এক পর্যায়ে সিংকুকে বিয়ের প্রস্তাব দিলে তিনি রাজি হয়ে যান।

গত ৬ এপ্রিল শ্যারন বাংলাদেশে আসে। তার পর মুসলিম রীতি অনুযায়ী তাদের বিয়ে হয়। ধর্মগত ভাবে দুই পরিবার একই ধর্মের হওয়ায় বিয়েতে কোন জটিলতা হয়নি।

তবে সিংকু জানান আমার সাথে শ্যারনের বয়সের বব্যবধান একটু বেশি হলেও আমারা মানিয়ে নিতে পারব । দুজন দুজনকে পেয়ে বেশ খুশি। উল্লেখ্য শ্যরনের বয়স এখন ৪০ আর সিংকুর ২৭।



ফরিদপুর সদর উপজেলার কানাইপুর ইউনিয়নের ঝাউখোলা গ্রামে চলছে আনন্দের জোয়ার আমেরিকার বউ পেয়ে এলাকার মানুষ বেশ খুশি। দূর দুরান্ত থকে বউ দেখতে দল বেধে সবাই আসছে। শ্যারন ও বেশ খুশি বলেন বাংলাদেশের মানূষ খুব ভাল।

সিংকুর মা নার্গিস আক্তার জানান, শ্যারুন খুব ভালো মেয়ে। এমন বৌ পেয়ে আমরা সবাই খুশি। বাংলায় সে যখন ‘আম্মু’ বলে ডাক দেয় তখন নিজেকে গর্বিত মনে হয়। সিংকুর বাবা আলাউদ্দিন মাতুব্বর বলেন, ওরা দুজন দুজনকে ভালোবেসে বিয়ে করেছে। আমরা ওদের জন্য দোয়া করি যাতে ওরা সুখে-শান্তিতে থাকতে পারে।

তবে শ্যরন ঢাকায় আসে ৬ এপ্রিল তাদের বিয়ে হয় ১০ এপ্রিল এখন তারা ফরিদপুরে। জানা গেছে কিছুদিন পর শ্যারন আবার আমেরিকা ফিরে যাবে। কয়েকদিন পর আবার বাংলাদেশে আসবেন।

‘প্রেমের’ টানে ‘আমেরিকা’ থেকে বাংলাদেশ, হলেন ‘বাংলার বউ’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *